মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২২

গুপ্তোত্তর যুগে উত্তর ভারত অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর

Clg history questions answers কলেজ ইতিহাস গুপ্তোত্তর যুগে উত্তর ভারত অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর guptputtor juge uttar bharat


প্রশ্ন । মৌখরীদের রাজধানী কোথায় ছিল ? 

উত্তর : মৌখরীদের রাজধানী ছিল কান্থকুজ বা কনৌজ । 

প্রশ্ন । মৌখরী রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা কে ছিলেন ?  

উত্তর : পরবর্তী গুপ্তরাজাদের পরাজিত করে ঈশানবর্মণ মহারাজাধিরাজ উপাধি গ্রহণ করেন । 

প্রশ্ন । মৌখরীবংশের রাজাদের নাম কি কি ছিল ? 

উত্তর : মৌখরীবংশের রাজারা হলেন হরিবর্মন , আদিত্যবর্মন , ইশানবর্মন , সুবর্ণবমর্ন , অবন্তীবর্মন ও গ্রহবর্মন । গ্রহবর্মন ছিলেন এই বংশের শেষরাজা ।তিনি পুষ্যভুতিরাজ প্রভাকরবর্ধনের কন্যা রাজ্যশ্রীকে বিবাহ করেন । সম্ভবত ৬০৫ খ্রিস্টাব্দে মালবরাজ দেবগুপ্তের নিকট তিনি যুদ্ধে পরাজিত ও নিহত হন । 


প্রশ্ন । গুপ্তযুগে যে হুনরাজা ভারত আক্রমণ করেন তাঁর নাম কি ? 

উত্তর : গুপ্তযুগে যে হুনরাজা ভারত আক্রমণ করেন তাঁর নাম হল তােরমান । 

প্রশ্ন । হর্ষবর্ধন কোন রাজ্যের রাজা ছিলেন ? তাঁর সঙ্গে কনৌজের কি সম্পর্ক ছিল ? 

উত্তর : হর্ষবর্ধন ছিলেন থানেশ্বরের রাজা ।কনৌজরাজ গ্রহবর্মন ছিলেন তাঁর ভগ্নী রাজ্যশ্রীর স্বামী । মালবরাজ দেবগুপ্তের সঙ্গে যুদ্ধে গ্রহবর্মনের মৃত্যু হলে প্রজাদের আমন্ত্রণে হর্ষবর্ধন কনৌজের সিংহাসনের দায়িত্বও গ্রহণ করেন । 


প্রশ্ন । ভাস্করবর্মন কে ছিলেন ? তাঁর সঙ্গে হর্ষবর্ধনের কিরূপ সম্পর্ক ছিল ? 

উত্তর : ভাস্করবর্মন ছিলেন কামরূপের রাজা । হর্ষবর্ধন তাঁর সঙ্গে মৈত্রী স্থাপন করে গৌড়াধিপতি শশাঙ্কের বিরুদ্ধে একযােগে অগ্রসর হন । 


প্রশ্ন । হর্ষবর্ধন কোন বাঙ্গালী রাজার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন ? এই যুদ্ধে হর্ষবর্ধন কোন কোন রাজার সঙ্গে মৈত্রী স্থাপন করে ছিলেন ? 

উত্তর : হর্ষবর্ধন গৌড়রাজ শশাঙ্কের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন । তিনি এই উদ্দেশ্যে কামরুপরাজ ভাস্করবর্মন এবং মগধরাজ মাধবগুপ্তের সঙ্গে মৈত্রি স্থাপন করেছিলেন । 


প্রশ্ন । রাষ্ট্রকূটদের শ্রেষ্ঠ শিল্প নিদর্শন কি ? 

উত্তর : ইলােরার বিখ্যাত কৈলাস মন্দির রাষ্ট্রকূটবংশের সর্বশ্রেষ্ট শিল্পকীর্তি । এই বিখ্যাত শিল্প মন্দির , রাষ্ট্রকূটরাজ প্রথম কৃষ্ণের রাজত্বকালে নির্মিত হয় । প্রস্তর স্থাপত্যে কৈলাসনাথ মন্দির পৃথিবীতে অপ্রতিদ্বন্দ্বী ।


প্রশ্ন । ইলােরা ভারতের ইতিহাসে বিখ্যাত কেন ?  

উত্তর : ইলােরা বর্তমান মহারাষ্ট্রে অবস্থিত । রাষ্ট্রকূট রাজাদের আমলের প্রস্তর নির্মিত শিল্পের জন্য ইলােরা বিখ্যাত । রাষ্ট্রকূটরাজ প্রথম কৃষ্ণের আমলে তৈরি কৈলাস মন্দির ছাড়াও আরও কয়েকটি হিন্দুদের দেবীর মন্দির এবং কয়েকটি বৌদ্ধ চৈত্য সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে । 


প্রশ্ন ৷ রাজা শশাঙ্ক সম্বন্ধে কি জান ? 

উত্তর : সপ্তম শতাব্দীর প্রথমভাগে শ্রীমহাসামন্ত শশাঙ্ক গৌড়ে এক স্বাধীন রাজ্যের প্রতিষ্ঠা করেন । বাঙ্গালী রাজাদের মধ্যে শশাঙ্কই ছিলেন প্রথম স্বাধীন নরপতি । উত্তরভারতের ইতিহাসেও শশাঙ্ক এক গুরুত্বপূর্ণ অংশগ্রহণ করেন । শশাঙ্ক শক্তিশালী রাজা ছিলেন । শশাঙ্কের প্রধান রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন কনৌজ ও থানেশ্বরের রাজা হর্ষবর্ধন । তা সত্ত্বেও বঙ্গদেশ ও ওড়িষ্যার কিছু অংশ দক্ষিণবিহার বারানসী প্রভৃতি অঞ্চল শশাঙ্কের অধীন ছিল । শশাঙ্কই বাঙ্গালীর প্রথম সাম্রাজ্য স্থাপন করেন । কর্ণসুবর্ণ (বর্তমান কানাসােনা ) তাঁর রাজধানী ছিল । বর্তমান মুর্শিদাবাদ জেলার রাজার ঢিবি নামক অঞ্চলে প্রাপ্ত ধ্বংশাবশেষকে প্রাচীন কর্ণসুবর্ণ নগরী মনে করা হয় । সম্ভবত ৬০৪ থেকে ৬৩৭ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত শশাঙ্ক রাজত্ব করেন । 

প্রশ্ন । পালবংশের প্রতিষ্ঠাতা কে ছিলেন ? 

উত্তর : পালবংশের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন গােপাল । 

প্রশ্ন । গােপাল প্রতিষ্ঠিত রাজবংশ কেন পালবংশ নামে পরিচিত ?  

উত্তর : ৭৫০ খ্রিস্টাব্দে গােপাল কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত রাজবংশের আঠারাে জন রাজার প্রত্যেকের নামই ‘পাল’ শব্দটির দ্বারা শেষ হয় । সেজন্য এই রাজবংশ পালরাজবংশ নামে পরিচিত । ১১৫৯ খ্রিস্টাব্দে এই রাজবংশের অবসান ঘটে । 

প্রশ্ন । বাংলার পালরাজারা কোন ধর্মের পৃষ্ঠপােষক ছিলেন ? 

উত্তর : বাংলার পালরাজারা বৌদ্ধধর্মের পৃষ্ঠপােষক ছিলেন । 

প্রশ্ন । প্রাচীন বাংলার দুটি বন্দরের নাম লিখ । 

উত্তর : প্রাচীন বাংলার দুটি বন্দর হল তাম্রলিপ্ত ও সপ্তগ্রাম । 


প্রশ্ন । কোন পালরাজা পাটলিপুত্র থেকে মুঙ্গেরে রাজধানী স্থানান্তরিত করেন ?  

উত্তর : রাজা দেবপাল পাটলিপুত্র থেকে মুঙ্গেরে রাজধানী স্থানান্তরিত করেন ।

প্রশ্ন । সেনবংশীয় কয়েকজন রাজার নাম লিখ । 

উত্তর : সেনবংশীয় রাজারা হলেন বিজয়সেন , বল্লালসেন, লক্ষণসেন প্রভৃতি । 

প্রশ্ন । কোন কোন কবি রাজা লক্ষ্মণসেনের রাজসভা অলঙ্কৃত করতেন ?  

উত্তর : লক্ষণসেনের রাজসভা ধােয়ী , উমাপতিধর , গােবর্ধন , সারন ও জয়দেব ।




কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন